চার শহীদের মা

কাদেসিয়া প্রান্তর।

পারস্য সম্রাটের সাথে ক্ষুদ্র মুসলিম বাহিনীর এক ভয়াবহ যুদ্ধ চলছে।

তদানীন্তন আরবের সর্বশ্রেষ্ঠা মহিলা কবি খানসা তাঁর চার ছেলে নিয়ে যুদ্ধের ময়দানে এসেছেন।

যুদ্ধ শুরুর পূর্বেই খানসা তাঁর ছেলেদের কাছে ডেকে বলে দিয়েছিলেন, “তোমাদের আমি বহুকষ্টে গর্ভে ধারণ করেছি, বহু দুঃখ বিপদের ভেতর দিয়ে মানুষ করে তুলেছি, এখন আমার কথা শোন, সত্যের জন্য যুদ্ধ করার মহত্বের কথা স্মরণ কর আর স্মরণ কর কুরআনের নির্দেশ – দুঃখ বিপদের মধ্যে ধৈর্য ধারণে বজ্রসার আদেশ।

কাল প্রভাতে সুস্থ মনে শয্যা ত্যাগ করে শংকাহীন চিত্তে সাহসের সঙ্গে যুদ্ধে যোগদান করবে- সর্বাপেক্ষা সাহসী যোদ্ধার সম্মুখীন হবে এবং প্রয়োজন হলে নির্ভীক চিত্তে শহীদ হবে।”

পরদিন খানসার চার ছেলে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়লেন এবং একে একে চার জনই শহীদ হলেন।

সংবাদ বীর মাতার কাছে পৌঁছলে তিনি দু’হাত উপরে তুলে বললেন, “আল্লাহ, আমাকে আপনি শহীদের মাতা হবার সৌভাগ্য দান করেছেন, আপনাকে সহস্র ধন্যবাদ।”

কোন শোকচ্ছাস নেই।

দুঃখের আবিলতা নেই – এক পরম তৃপ্তিতে মায়ের বুক ভরে গেছে – পুত্ররা তাঁর সত্যের জন্য প্রাণ দিয়েছে।

এর চাইতে গৌরবজনক মৃত্যু আর কি হতে পারে !

You may also like...

Skip to toolbar