জ্ঞান ফিরে পাওয়ার পর মহানবী শত্রুদের মঙ্গল চাইলেন

উহুদের যুদ্ধক্ষেত্র।

মহানবী(সাঃ) স্বয়ং সৈনিকদের ব্যুহ সাজিয়েছেন।

পাহাড়ের গলিপথে পাহারা বসিয়েছিলেন এবং যার যা দায়িত্ব নির্দিষ্ট করে দিয়েছিলেন।

কিন্তু প্রাথমিক বিজয় মুসলিম সৈনিকদের আত্মহারা করে

দিয়েছিল, দায়িত্বের কথা তারা ভুলে গিয়েছিল।

পাহাড়ের গলিপথ রক্ষার দায়িত্ব যাদের উপর ছিল, তারা সরে এসেছিল সেখান থেকে।

ফলে পেছন থেকে আক্রান্ত হওয়ার বিপর্যয় নেমে আসে মুসলিম বাহিনীতে।

অনেক সাহাবী শহীদ হলেন।

আহত হলেন আরও অনেকে। স্বয়ং মহানবী(সাঃ) মারাত্মক আহত হলেন।

পাথরের আঘাতে তাঁর কপালে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হলো।

লৌহ শিরস্ত্রাণ তাঁর ঢুকে গিয়েছিল ক্ষতে।

দাঁতও তাঁর ভেঙে গিয়েছিল।

তিনি অজ্ঞান হয়ে পরেছিলেন।

পাহাড়ের এক চূড়ায় সাহাবীরা তাঁকে ঘিরে দাঁড়িয়েছিলেন।

তিনি জ্ঞান ফিরে পেয়ে চোখ খুলে চাইলেন।

রক্ত মুছে ফেললেন মুখমণ্ডল থেকে।

তারপর তিনি প্রথম কথা বললেন তা ছিল এই,

“হে আল্লাহ, আমার লোকদের সত্য পথে ফিরিয়ে আনুন। তারা জানে না তারা কি করছে।”

You may also like...

Skip to toolbar