হযরত উমর (রা)-এর কঠোর সিদ্ধান্ত

হযরত  আবু বকর (রা)-এর খিলাফতকাল।

দুই সাহাবী আকরা বিন হারিস এবং আইনিয়া বিন হাসান আবু বকরের দরবারে হাজির হলেন।

মহানবী (সা) তালিফে কুলুব হিসেবে যাদের সাহায্য করতেন, আকরা তাদের একজন।

তারা খলিফা আবু বকরের কাছে ‘জায়গীর‘-এর আবেদন জানালেন।

আবু বকরের দরবারে তখন উমর ফারুক (রা) হাজির ছিলেন।

তিনি আকরা (রা)-কে উদ্দেশ্য করে বললেন, “রাসূলুল্লাহ (সা) তোমাকে তালিফে কুলূব করতেন।

এখন তোমার পরিশ্রম কর উচিত।” আবু বকর (রা) রাসূল (সা)-এর আমলের সকল দান ও উপঢৌকন বহাল রাখেন এবং আকরা ও আইনিয়া হাসানের আবেদন অনুসারে তাদের জমি বরাদ্দের লিখিত নির্দেশ দিলেন।

এর অনেক পরের ঘটনা।

তখন উমর ফারুক (রা)-এর শাসনকাল।

আকরা (রা) এবং আইনিয়া হাসান এলেন তাঁর কাছে এবং আবেদন করলেন আবু বকর (রা) কর্তৃক নির্দেশ বহাল রাখার জন্যে।

উমর (রা) তাদের আবেদন প্রত্যাখ্যান করলেন এবং বললেন, “আল্লাহ ইসলামের বিজয় দিয়েছেন এবং তোমাদের থেকে মুখাপেক্ষীহীন করেছেন।

এখন তোমরা (জায়গীর ও উপঢৌকন ছাড়া) ইসলামের উপর মজবুতভাবে দাঁড়িয়ে যাও।

নচেৎ আমাদের ও তোমাদের মধ্যে তরবাবিই ফায়সালা করবে।”

উপর (রা)-এর এই সিদ্ধান্ত কঠোর হলেও তার মধ্যে কোন বিরূপ প্রতিক্রিয়াই হলো না।

আকরা (রা) হাসিমুখে ও আন্তরিকতার সাথে এই সিদ্ধান্ত মেনে নিলেন।

অতঃপর জিহাদের ময়দান হলো আকরা (রা)-এর স্থান।

যদ্ধরত অবস্থায়ই তিনি শাহাদাত তিনি শাহাদাত বরণ করেন।

 

You may also like...

Skip to toolbar